তিস্তা রায়ের গল্প 'নষ্ট পুরুষ'



-ছিঃ ভাই ছিঃ!তুই শেষ পর্যন্ত রিমিতাকে বিয়ে করবি বলে কথা দিলি?তুই বোধহয় জানিস না ও কীরকম ঢলানি মাল!

-মুখ সামলে কথা বল্!আমার কথা দেওয়া মানে বিয়েটা হয়েই গেছে ধরে নে।সুতরাং,এখন আমার বউ সম্পর্কে কোনো উল্টোপাল্টা কথা তোর মুখ থেকে শুনতে চাই না।

-হুহ্!তোর বউ!ও তো একটা নষ্টমেয়ে!আমার সাথে ও কতবার শুয়েছে খোঁজ রাখিস?

-ইউ শ্যুড গো টু হেল।বাই।

-শুনবি কেন?তুইও তো শালা ওরই মত একটা ঢ্যা..
ঐশিক আর কোনো কথা না শুনে রজতের কলটা কেটে দেয়।


রজত মুখার্জী,রিমিতা মন্ডল:
ফ্লাশব্যাক 1

-আমি ফার্দার বলে দিচ্ছি রিমি,কুলু মানালিতে কোনো ট্রেকে তুমি যাবে না!ঘোরার ইচ্ছে থাকলে আমার সাথে নেক্সট সানডেতে চাঁদিপুর চলো,দারুণ মস্তি হবে!কিন্তু ঐসব..

-রজত,শুধু একটাবার আমার কথা শোনো..সঞ্জনা,ঐশিক,মনিকাদের সাথে আমি সেই কলেজলাইফ থেকে ট্রেকিংয়ে যাই..এটা আমার প্যাশন..প্লিজ বোঝো বাবু..আর তোমার সাথে তো বিয়ের পর যাবই..

-হ্যাহ্ বিয়ে!একটা কথা কান খুলে শুনে রাখো,আমার কথা না শুনে চললে বিয়ে তো দূরের কথা,তোমার সাথে আমার ঠিক কী কী হয়েছে সেটা সবাইকে জানিয়ে দেবো ওকে?

রজত মুখার্জী,রিমিতা মন্ডল:
ফ্লাশব্যাক 2

-কাম অন রিমি!দ্যাখো চারিদিকে সবাই কত কী করছে আর তুমি!এত নিরামিষ কেন তুমি?

-দেখো এসব বোলোনা,চলো ঐদিকে যাই...সন্ধ্যে হয়ে গেছে..এখানে খুব অন্ধকার..আমার ভাল্লাগছেনা..

-প্লিজ সোনা,শুধু একবার,কেউ কিছু জানতে পারবে না,প্লিজ,আই কান্ট কনট্রোল মাইসেলফ্..প্লিজ..

-না,প্লিইজ না,বিয়ের পর যা খুশি কোরো,এখন আমাকে ছেড়ে দাও..

-রিমি..প্লিজ গিভ মি আ চান্স..প্লিজ..বি ফ্লেক্সিবল্..প্লিজ..আর একটু..প্লিজ...লভ ইউ সো....

রিমিতার চোখভরা জল।

আস্তে আস্তে সে খানিকটা আপনমনেই বলে,"ছোটোবেলায় বাবামার সাথে পার্কে এসেছিলাম...তারপর এই..ভেবেছিলাম দোলনা চড়ব,ছেলেমানুষি করব..তার জায়গায়......."


লিখেছেন তিস্তা রায়

No comments

Powered by Blogger.