অনুগল্প "পাগল টাইপের লোকটা "




পড়ন্ত বিকেলের স্টেশন। আকাশ টা যেন গায়ে, হলুদ মেখেছে। দুরে ইউক্যালিপটাস গাছের পাতা গুলো হাওয়ার তালে তালে মাথা নাড়াচ্ছে। অনেক আগেই ট্রেন চলে গেছে তাই স্টেশন টা একটু ফাঁকা ফাঁকা।কয়েকজন কুলি আর স্টেশন দোকানি প্লাটফর্মের উপর।প্লাটফর্মের উপর একটি আম গাছের নীচে পাতা বেঞ্চ টিতে বসে লোকটি আনমনে হলুদরঙা আকাশটির দিকে তাকিয়ে ছিল। প্রায় পঁয়তাল্লিশের কাছাকাছি লোকটির বয়স। মাথায় এলোমেলো লম্বা লম্বা চুল, মুখ ভর্তি সাদা কালো খচখচে গোঁফ দাড়ি। পরনে রঙ চটা একটা জামা, প্যান্ট। প্রথম দৃষ্টিতেই লোকটিকে পাগল মনে হবে,কিন্তু সাধরন পাগলদের মতো তার হাব ভাব নয়। পাশে রাখা সুটকেসের উপর হাত রেখে একদৃষ্টে আকাশের দিকে তাকিয়ে আছে।

বেশ কিছুসময় পর আরেকটি ট্রেন এসে ঢুকল স্টেশনে। একমুহুর্তে মানুষের কোলাহল ছড়িয়ে পড়ল সারা প্লার্টফর্মটিতে। লেডিস কামরা থেকে একটি মেয়ে নেমে এগিয়ে আসছে এদিক টাতে। মেয়েটির বয়স খুব বেশী নয়,তা কুড়ি, একুশ হবে। লোকটি মেয়েটির দিকে তাকিয়ে আছে একদৃষ্টে,- সেই, মুখ...সেই চুল,...সেই ঠোঁট...সেই হাঁটার স্টাইল....বিদিশা! অস্ফুট স্বরে লোকটি বলে উঠল।
মেয়েটি এখন লোকটির কাছে এসে পড়েছে। হঠাৎ লোকটি উঠে মেয়েটির হাত ধরল," — বিদিশা! আমাকে চিনতে পারছ? আমি ... আমি...তোমার....!"
একটা ঝটকায় মেয়েটি হাত ছাড়িয়ে নিল।-" কে, আপনি? আমি বিদিশা নই। আমি রিয়া।"
লোকটি বিশ্বাস করল না। আবার কাঁপা কাঁপা হাতে মেয়েটির হাত ধরল।- "না! তুমিই বিদিশা। তোমার মুখ, চোখ, ঠোঁট বলছে ..তুমিই বিদিশা। কিন্তু তুমি সেই একই রকম আছ কি করে? দেখ, আমি কত বুড়ো হয়ে গেছি।"
মেয়েটি চিৎকার করে উঠল,— "হাত ছাড়ুন। অভদ্রতার একটা সীমা আছে! বুড়ো হয়ে মরতে গেলেন তবুও এখনো বদ অভ্যাস গুলো যায়নি?"
চারিদিকে লোক জোড়ো হয়ে গেছে। ষন্ডামার্কা কয়েকটি লোক এসে দু একটা চড় থাপ্পড় মেরে পাগল টাইপের লোকটিকে বিদায় করল। আরও মারতে যাচ্ছিল,কিন্তু মেয়েটি থামিয়ে দিল।
বাড়ি ফিরে মেয়েটি জামা খুলতে খুলতে তার মাকে বলল, -"জানো মা! আজ না,প্লাটফর্মে একটা বিশ্রী মজার ব্যাপার ঘটেছে।"
- "কি ?"
-" আর বলো না, একটা পাগল এসে আমার হাত জড়িয়ে ধরে,তোমার নাম করে ডাকছিল।এত করে বলছি,— আমি বিদিশা নই,তবুও কথা শুনছে না। শেষে মেরে ধরে ভাগাতে হল পাগল টা কে।"
- "লোকটি কে মেরেছিস?" -মেয়েটির মায়ের গলা যেন কেমন কাঁপা কাঁপা মনে হল।
গোলাপি রঙের নাইটি টা পরে নিয়ে মেয়েটি , মায়ের গলা জড়িয়ে ধরল।— "মা, আমি একদম তোমার মতো দেখতে হয়েছি না?
 - "হ্যাঁ! একদম আমার মতো।"
-" মা, তুমি কাঁদছ কেন? "

স্বদেশ কুমার গায়েন (২০১৫)

No comments

Powered by Blogger.