তোমায় বলা আনমনা কিছু কথারা




১.

নীল ঝরনার পাহাড়িয়া বাতাশের কোলে এলো চুলো তোমায় সব থেকে সুন্দর লাগে। শীতল জলে পা ডুবিয়ে, নীল আকাশের দিকে তাকিয়ে স্বপ্নে ভেসে যাও তুমি। তোমার গোলাপ ঠোঁট, চোখের প্রতিটা পলক গল্প এঁকে যায়। জন্ম থেকে মৃত্যুর প্রতি স্তরে গল্পের তুমি গল্পের নায়িকা। অন্ধকার রাস্তায় তুমি যখন হেঁটে চলো, একদল পিশাচ তোমার পিছু নেয়।রক্তাক্ত হয়ে তখনও গল্প তৈরী করে যাও তুমি। তাই আজ শুধু তোমাদের গল্প। তোমার গল্প আমার কলমে৷

২.

জানালার পাশের অশথের পাতায় যখন অঝোর ধারায় বৃষ্টি নেমে আসে, আমার মনে হয়, কোনো চিলেকোঠার গোপন ঘরে তুমি নীরবে চোখের জল ফেলছো- তখন আমি কলম নিয়ে লিখতে বসি।
বালু চিক চিক তোমার চিবুকে যখন কেউ চুমুর রেখা এঁকে দেয়-তখন আমি গল্পের নায়িকায় তোমার ছবি ভাবি। পাহাড়ের কোলে সূর্য ডোবে। তুমি হাত ধরে আমাকে কাছে টেনে নাও। আবার গল্প তৈরী হয়। তোমার গল্প, আমার গল্প।


৩.

একবার তাকিয়ে দেখ,
নীল আকাশের মাঝে সাদা পায়রা টা তোমাকে ডানা মেলে ডাকছে।
একবার তাকিয়ে দেখ,
ঘাসের মাঝের নাম না জানা ফুল গুলো তোমার স্পর্শ পেতে চায়।
একবার তাকিয়ে দেখ,
যে তোমায় কালো বলে চলে গিয়েছিল, সে
আজ সঙ্গীহীন।
একবার তাকিয়ে দেখো,
যে তোমায় কষ্ট দিয়েছিল, সে আজ কালো অন্ধকারে ডুবে গেছে।
তোমার মনের কোনে জমে থাকা একটু দু:খ,  একটু যন্ত্রনা, টুপ টুপ করে আরও একবার ঝরে পড়ে আমার কলমের ডগায়।

৪.

একটা রাত ছিল তোমার চুলে মতো কালো, একটা দিন ছিল তোমার চোখের মতো উজ্বল একটা সকাল ছিল, তোমার গোলাপ ঠোঁটের মতো সুন্দর,
একটা বিকেল ছিল, তোমার এলোচুলে ছাদের কার্নিসে দাঁড়িয়ে থাকার মতো,
আর একটা আমি ছিলাম, তোমার মনের গোপনে.......

৫.

আরেকটু ভালোবাসো আমায়,
এক মুঠো বরফ কুচি সাজিয়ে দেব তোমার চোখের পাতায়।
আরেকটু ভালোবাসো আমায়,
এক মাঠ সরষে ক্ষেত উপহার দেব তেমায়...
ক্লান্ত বিকেল,বেনারসী সূর্য,তালদিঘি জুড়ে নেমে আসা নিস্তব্দতা...
আর আমার একটুখানি ভালোবাসা।

৬.

ভোরের কুয়াশা তোর দু'হাতের মতো আদর করে জড়িয়ে ধরে,
আমি তাকিয়ে থাকি দিঘির জলে।
নুইয়ে পড়া বটের পাতা থেকে টুপ টুপ হিম পড়ে, ইচ্ছে করে একটা হিমের টোপ তুলে এনে তোর কপালে বসিয়ে দিই.......

৭.

শীতের ভোর। ধোঁয়া ওঠা চায়ের কাপ। বট পাতা থেকে টুপ টুপ করে হিমের ফোঁটা। আর, তুমি শাল জড়ানো গায়ে কুয়াশার চাদরের ভেতর থেকে ধীরে ধীরে বেরিয়ে,আমার সামনে এসে দাঁড়াও- এরকম একটা দৃশ্যের জন্যে আমি অনন্তকাল বেঁচে থাকতে চাই।

৮.

আরেক'টু কাছে এসো,
তোমার চোখের পাতায় ভোরের শিশির এঁকে দেবো।
আরেক'টু ভালোবাসো,
রাঙা মাটির পথ বেয়ে শালের বনে হারিয়ে যাব দু'জন। বৃষ্টি নামবে সবুজ পাতায়।
তোমার ভেজা চুলের গন্ধে ভরে উঠবে শাল বন। আর, আমি আরও একবার প্রেমে পড়বো তোমার।

৯.

সেদিন ফুল ফুটে ছিল তোমার ঠোঁটের হাসিতে
সেদিন ভোর হয়েছিল তোমার হাতের স্পর্শে,
সেদিন বৃষ্টি নেমেছিল তোমার চোখের চাহনিতে;
সেদিন চাঁদ নেমে এসেছিল তোমার ছাদে,-
ছুঁতে চেয়েছিল তোমার ক্লান্ত মুখ খানি।
সেদিন সন্ধ্যে নেমেছিল তোমার কালো চুলে, সেদিন জোছনা ভেসে ছিল তোমার সারা শরীর জুড়ে
সেদিন ঝড় উঠেছিল, চার দেওয়ালের ভেতর তোমার যন্ত্রনায়;

আমি দেখেছিলাম সব। অসহায়ের মতো ছটফট করেছিলে, আমাদের সামাজিক অবক্ষয়ে। যেন শিকল ভেঙে তুমি বেরোতে চাইছো। পাখি হয়ে উড়ে যেতে চাও অনেক দূরে। যেখানে কেউ কষ্ট দেবে না তোমায়। তারপর একদিন সত্যিই তুমি উড়ে গেলে। অনেক দূর। অনেক দূরে। যেখানে কোনো কষ্ট নেই, নেই যন্ত্রনা। আর, আমি নীরবে বসে কলম হাতে নিয়ে তোমার রেখে যাওয়া গল্পটা শেষ করেছিলাম।


১০.

সারাদিনের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর,
পরম আদরে আমার মাথাটা যখন তোমার বুকে টেনে নাও,তখন মনে হয় পৃথীবিতে এর থেকে আর শান্তির জায়গা কোথাও নেই।

স্বদেশ কুমার গায়েন (২০১৬)

No comments

Powered by Blogger.