দুটি পরমানু গল্প " ডিলিট, এবং ঘরেফেরা "



ডিলিট

লেভেল ক্রসিং পেরিয়ে,কিছুটা হেঁটে গিয়ে রেল লাইনের পাশে বসে আছি।এদিকটা একটু ফাঁকা ফাঁকা।আসেপাশে ঘরবাড়ি তেমন নেই। দু'পাশে ধূ ধূ মাঠ।মাঠের উপর খোলা আকাশ। কিছুক্ষন আগে সূর্য টা আকাশের সাথে সিঁদুর খেলে দূরে গ্রামের আড়ালে মুখ লুকিয়েছে।তারপর একটু একটু করে কালো হয়ে এলো চারিদিক।
সন্ধ্যা নেমে গেছে মাঠের উপরে।হাতের ঘড়ির দিকে তাকালাম। পৌনে সাতটা।ডাউন ট্রেন আসতে এখনো মিনিট পাঁচেক বাকি।ফেসবুকে হোয়াটঅ্যাপসে,পাঠানো তোর সব ছবি,ম্যাসেজ, ফোন নাম্বার সব ডিলিট করে দিয়েছি।কিছু নেই আর।তোর সব স্মৃতি ডিলিট করতে চাই।
কিন্তু আমার মন থেকে, তোকে ডিলিট করতে পারছি কই?
ট্রেনের হুইসেল শোনা গেল। গর্জন গর্জন করতে করতে এগিয়ে আসছে লোহার অজগর। উঠে দাঁড়ালাম।একটু একটু করে এগিয়ে গেলাম রেল লাইনের উপর।আমাকে মরতেই হবে.....!



ঘরে ফেরা

বাড়ি থেকে পালাচ্ছি।

কোথায়,কোনদিকে যাব জানিনা।যে দিকে চোখ যাবে সেদিকে চলে যাব। শিয়ালদহ স্টেশনে বসে আছি ট্রেনের অপেক্ষায়।
আমার সামনে দু'টো বাচ্চা ছেলে–মেয়ে বসে আছে। ফর্সা, খালি গা,ময়লা ঝট পড়া লাল চুল। মেয়েটি হাঁটতে জানে না।একটু একটু কথা বলতে পারে।ছেলেটি একটু বড়। বছর তিন- চারেক বয়েস হবে।হাতে দু'টাকা একটি কয়েন।
–"বোন, তোর খিদে পেয়েছে?একানে বসে থাক। আমি বিস্কুট কিনে আনচি...।"

ছেলেটা দৌড়ে চলে গেল সামনের খাবারের স্টলের দিকে।আর চোখে জল এল আমার। বোনের কথা মনে পড়ল।

পরের ট্রেনে বাড়ি ফিরলাম।

স্বদেশ কুমার গায়েন ( ২০১৬)

1 comment:

Powered by Blogger.